বর্ডারে সেনার হাতে আটক দুই পাচারকারী আসলে বাংলাদেশ সেনা জওয়ান-ফেরত দিলো ভারত

গত ১০ নভেম্বর দিনাজপুর সংলগ্ন এলাকায় কাটাতার পেরনোর সময় ভারতীইয় সেনার হাতে ধরা পরে দুই বাংলাদেশী নাগরিক। কাটাতার পেরিয়ে তারা ভারতীয় ভূখন্ডে প্রবেশ করা মাত্রই পাকড়াও করে ভারতীয় সেনা জওয়ানেরা। তবে পরবর্তীতে ফ্লাগ মিটিং এর মাধ্যমে তাদের তুলে দেয়া হয় বাংলাদেশের হাতে। কারন দুজনে আসলে ছিলেন বাংলাদেশ সেনার সদস্য।

ঘটনায় জানা যায় গত ১০ নভেম্বর ভারতীয় সীমান্ত পেরিয়ে আসে দুই সাধারণ নাগরিক, ধরা পড়ার পর জানা যায় তারা আসলে বাংলাদেশ সেনা র‍্যাবের সদস্য। আসলে তারা ছদ্মবেশে পাচারকারী ধরার সময় ভুল করে ভারত ভূখন্ডে প্রবেশ করে পাকড়াও হয়। স্বরসতীপুর সীমান্তের মেইন পিলার ৩০৭, সাব পিলার-১ এর কাছ থেকে তাদের আটক করে নিয়ে যায় বিএসএফ।

সেদিন সিভিল পোশাকে মোটরবাইকে করে চরাকারবারি পাকড়াও করতে যায় এই সেনা জওয়ানেরা আর তখনই তারা ভারতে প্রবেশ করে, আর তখন পেট্রোলিংরত সেনারা তাদের পাকড়াও করে। পরে বাংলাদেশ সরকারের অফিশিয়াল দাবী মেনে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়, সৌজন্য বিনিময়ের মাধ্যমে। প্রসঙ্গত, এর আগেও একই রকম ভাবে সৌজন্যতায় মানবতার নজীর গড়েছে ভারতীয় সেনা। গত আগস্টে চীনের এক সেনাকে সুস্থ করে ঘরে ফেরায় তারা।

সেদিন বর্ডারে গুলির শব্দ শুনে এগিয়ে যায় ভারতীয় সেনা আর সেখানে গিয়ে ঘটনাস্থলে বিএসএফ সদস্যরা পৌঁছে ওই ২ র‌্যাব সদস্যকে আটক করে ভারতীয় সমজিয়া ক্যাম্পে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় বিজিবির সাথে পতাকা বৈঠকের জন্য বিএসএফের কাছে চিঠি পাঠায়। মঙ্গলবার রাত দশটার দিকে দুই দেশের সীমান্ত বৈঠকের মাধ্যমে তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *