প্রতিভাবানদের কেরিয়ার ধ্বংস করে বিদায় নিলো tiktok, প্রতিবাদে মোমবাতি মিছিল

তরতর করে বাড়ছিল জনপ্রিয়তা। ভারতে আট থেকে আশি মনে গেঁথে গিয়েছিল TikTok। সেই জনপ্রিয় ভিডিয়ো শেয়ারিং অ্যাপ TikTok ভারতবর্ষে আর ডাউনলোড করা যাচ্ছে না। Apple এবং Google playstore থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এই অ্যাপ্লিকেশন। গত ৩ এপ্রিল তামিলনাড়ুর হাইকোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারকে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা নিষিদ্ধ করতে আবেদন করেছিল।

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে এই মর্মে আবেদন করেছিল যে, এই অ্যাপের মাধ্যমে অবাঞ্ছিত ভিডিয়ো তৈরি করে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। শুধু তাই নয়, শিশুদেরকে টার্গেট করে তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে এই সব অবাঞ্ছিত ভিডিয়ো।

সরকারের এই ব্যবস্থায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছে প্রতিভাবান নেটিজেনের একাংশ! তাদের মতে তাদের প্রতিভা প্রকাশের একটি বিরাট প্লাটফর্ম ছিলো এই tiktok, গানের তালে কোমর দুলিয়ে বা অডিও ডাবিং করে নিজেদের সুপ্ত প্রতিভা তুলে ধরতেন অনেক ছেলেমেয়ে! অনেক ছেলেই তাদের সুপ্ত নারীসত্তা প্রকাশ করতেই এই অ্যাপে!

কখনও সিঁদুর পরে লাল বেনারসীতে দাড়িওলা ছেলেটি, বা বেলুন সহযোগে তার বক্ষের সৌন্দর্য প্রকাশ করে একটি ছেলের ভিডিও- হৃদয় কেড়েছিলো সকলের!! অনেকে ছক্কা হিঁজড়ে বলে ব্যঙ্গ করলেও একাংশের কাছে এরা জনপ্রিয়ই ছিলো বটে!!

প্লেস্টোর থেকে এই অ্যাপ সরে যাওয়ার পর পক্ষে বিপক্ষে বহু আলোচনা শুরু হয়, ফেসবুক টুইটার জুড়ে! অনেকের হাড় জুড়োলো, অনেকে ক্ষোভে ফেটে পড়লো! তাদের ট্যালেন্ট প্রমাণের একটি প্লাটফর্ম নষ্ট হলো! তবে টিকটল খ্যাত চ্যাঁচানো বউদিসহ, সম্রাট, মঞ্জুলদের কোনো প্রতিক্রিয়া চোখে পড়েনি!

তবে এ ব্যপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে, অনেকেই বলছেন তাদের ব্যক্তিস্বাধীনতা হস্তক্ষেপ করা হয়েছে! সকলে অ্যাপটি ফিরিয়ে আনার জন্য চেষ্টা করছে, একাংশের দাবী tiktok না ফিরলে তাদের চাকরি দিতে হবে, নাহলে শহীদ মিনারের সামমে টিকটকের দাবীতে তারা মোমবাতি মিছিল করবে! টিকটকের প্রভাব আগামী ভোটে কতটা পড়ে সেটাই দেখার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *