ফাইনালের উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচ দেখে বিচি গলায় উঠে এলো যুবকের, মাথায় জাঙিয়া

৪৪ বছরের বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথমবার। ফাইনাল ম্যাচ টাই। ম্যাচ গড়াল সুপার ওভারে। সেখানে বাজিমাত্ । সুপার ওভারে প্রথমে ব্যাট করে ইংল্যান্ড করে ১৫ রান। বেন স্টোকস আর জোস বাটলার মিলে ট্রেন্ট বোল্টের ওভারে ১৫ রান তোলে। অন্যদিকে নিউ জিল্যান্ডও সুপার ওভারে তোলে ১৫ রান।

কিন্তু একটি উইকেট পড়ে যায় নিউ জিল্যান্ডের। আর তাতেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায় ইংল্যান্ড। এ যাবতকালে এমন ম্যাচ দেখা যায়নি। চার নাম্বারে থেকে ফাইনাল যেতা টিম ইংল্যান্ড।

৫০ ওভারের ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ২৪১ রান, সেই রানের জবাবে ব্যাট করে ইংল্যান্ড করে সব উইকেট হারিয়ে ২৪১ রান, ম্যাচ গড়ায় টাইতে, সুপার ওভারে।

সুপার ওভারে ব্যাট করতে নেমে প্রথমে ইংল্যান্ড তোলে ১৫ রান যার জবারে ১৬ রান করতে হত নিউজিল্যান্ডকে। টান টান উত্তেজনাপূর্ণ সুপার ওভারও টাই, ১৫ রান। তাই আইসিসি নিয়ম অনুসারে ম্যাচে মোট চার ছয়ের সংখ্যার বিচারে জয়ী ইংল্যান্ড।

এ যাবত কালের মধ্যে এমন ফাইনালের সাক্ষী কেউ হয়নি, এমন ম্যাচ দেখে রুদ্ধশ্বাস হয়ে যায়, বারাসাতের তপনের। পাড়ার ক্লাবে খেলা দেখছিলেন তিনি, হঠাত কাশতে শুরু করেন বিষম খেয়ে টেনশনে, মাথায় জল দিয়ে ঠিক করা হয়। সুস্থ হয়ে তিনি বলেন, “বিচি মাথায় উঠে গেছিলো”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *