স্নানের ভয়ে বিয়ের দিন বাড়ি থেকে পালালো যুবক-তারপর কি হলো দেখুন

বিয়ের দিন বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে যুবক। এটা মোটেও কোনো কমেডি মুভির গল্প নয়। সবটাই বাস্তব যা ঘটেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার রঙ্গপুর এলাকায়। আর ঘটনা ঘটিয়েছে সেখানের বাসিন্দা সমীরণ মাঝি। কিন্তু কেনো এমন ঘটালেন সমীরণ তা নিয়ে প্রথমে অনেক ধোয়াশা পরে কেটে যায়।

সকলে প্রথমে ভাবছিলো অন্য জায়গায় প্রেমে জড়িয়ে সমীরণ তাই হয়ত পালিয়েছে। পরে দেখা গেলো এক বিশাল ষড়যন্ত্র কাজ করছে এর পেছনে আর সেটা আর কেউ নয় সমীরণ নিজে। সেই বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় বিয়ের দিন ভোরবেলা কাউকে না জানিয়ে কারণ সেদিন খুব শীত করছিলো ভোরবেলা।

Loading...

জানা যায় শীতকাল এলেই স্নান করেনা সমীরণ; প্রায় দুমাস স্নান না করার রেকর্ড আছে তার। এমনকি সকালের প্রাতকর্মও তিন চার দিন অন্তর করেন। একবার এই না হাগার জন্য ডাক্তারের কাছেও যেতে হয়েছে অতীতে। যাই হোক সেদিন পালাতে গিয়ে সমীরণ ধরা পড়ে যায় নিকটবর্তী রেলস্টেশনে।

পরে বাড়ি এনে গরম জল দিয়ে স্নান করিয়ে বিয়ে করতে যাওয়ার জন্য রাজি করা হলেও এই খবর পৌছে যায় মেয়ে পক্ষের কানে। এবার বেঁকে বসে তারা। স্নান না করা পিচাশ জামাই তারা করতে নারাজ। তবে নিয়মিত স্নান করবে অঙ্গীকারে সমীরণের বিয়ে হয় গত ১১ ডিসেম্বর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *