মোটা হয়ে যাচ্ছে বলায় পাশের বাড়ির কাকিমাকে “বোকাচোদা” বলে চড় কষালো মেয়েটি

বিজ্ঞানী এবং নীতি নির্ধারকরা সতর্ক করে দিয়েছেন যে, যেভাবে স্থূলতার বিষয়টি মোকাবেলা করা হচ্ছে তা ভুল এবং কুসংস্কার নির্ভর হয়ে পড়েছে। কিন্তু মোটা হওয়া বা স্থূলতার বিরুদ্ধে এই লড়াইয়ে কোনটা সত্যি আর কোনটা মিথ্যা?

এসব প্রশ্নের উত্তর হয়তো আপনাকে অবাক করে দেবে। ‘স্থূলতা একটি রোগ, পছন্দের ব্যাপার নয়’

তা সত্ত্বেও, ২০১৮ সালেও চিকিৎসকদের সংবাদ পোর্টাল ‘মেডস্কেপে’র জরিপে দেখা গেছে, দেশটির ৩৬ শতাংশ চিকিৎসক আর ৪৬ শতাংশ সেবিকা এটিকে রোগ বলে মনে করেন না। ৮০ শতাংশ চিকিৎসক উত্তর দিয়েছেন যে, স্থূলতার পেছনের বড় কারণটি হলো জীবনযাপনের ধারা।

তবে এই স্থূলতাকে কেন্দ্র করে হুলুস্থুল দত্তপুকুর দীঘামোড়ে; দীঘার বাসিন্দা সবিতা দেখতে শ্যামবর্ণ মোটা, আর তাতে ইয়ার্কি করে মোটা বলেছিল পাশের বাড়ির কাকিমা কবিতা। ব্যাস তাতেই রেগে আগুণ সবিতা খারাপ ভাষায় আক্রমণ করতে থাকে তাকে।

এই নিয়ে পাড়ায় গন্ডোগোলের সৃষ্টি হয়। তবে অত বড়ো মানুষকে বকাচদা বলা উচিত নয় বলে মনে করছে অনেক। তবে মোটারা মনে করছে ঠিক বলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *