রাস্তায় পাদ মারা নিয়ে বালুরঘাটে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৩০

পাদ মারাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বালুরঘাটের পাশ্ববর্তী বড়ইছড়া গ্রামে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। আহতদেরকে স্থানীয় হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রবিবার রাতে পরমানন্দপুর গ্রামের শাহীন নামে এক যুবক বড়ইছড়া গ্রামের রাস্তা দাঁড়িয়ে পাদ মারেন।পাদের গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে, ‘কে পাদ মেরেছে’ জিজ্ঞেস করা হলে উত্তর দেয় নি কেউ।উলটো নিজের পাদ অস্বীকার করেন শাহীন। পরমানন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা শহর আলী এভাবে রাস্তায় দাঁড়িয়ে পাদ মারতে নিষেধ করলে বাগবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন শাহীন।

পরবর্তী সময়ে শাহীন তার গ্রামে গিয়ে ঘটনাটি জানালে গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বড়ইছড়া গ্রামে আক্রমণ করে। এ সময় বড়ইছড়া গ্রামের লোকজনও লাঠি নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে উভয় গ্রামের অন্তত ৩০ জন আহত হন। সংঘর্ষ চলাচকালে বড়ইছড়া গ্রামের বেশ কয়েকটি ঘর-বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়।

স্থানীয় এক নেতা জানান, এমন ঘটনা ঘটতে পারে আমরা ভাবিনি; এমন ব্যপার নিয়ে এমন হয়ে যাবে কল্পনাও করা যায়নি। তাদের মতে সামান্য পাদকে নিয়ে এমন ব্যপার মেনে নেয়া যায় না। তাই যে পেদেছে তাকে জোলাপ খাইয়ে হাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

[chosmedia.com একটি বিদ্রুপাত্নকমূলক এবং রসাত্নমূলক ওয়েবসাইট। এখানে প্রকাশিত সব খবর বিশ্বাস তো দূরে থাক অবিশ্বাস ও করবেন না]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *