তিনবার ধুয়েও ওঠেনি প্যান্টের স্বপ্নদোষের দাগ, Surf Excel এর বিরুদ্ধে মামলা চায় হাওড়ার অর্ণব

সার্ফ এক্সেল, ডিটারজেন্ট পাওডার নির্মাতা কোম্পানীর জগতে অন্যতম নাম। বরয়াবর তাদের বিজ্ঞাপনের জন্য নজর কাড়ে এই ডিটারজেন্ট নির্মাতা কোম্পানীর। কোপমানীর বরাবরের দাবী যেকোনো প্রকার জেদি দাগ অনায়াসে তুলে ফেলে এই সার্ফ। তাদের কোম্পানীর একটাই বক্তব্য “দাগ ভালো”।

কিন্তু এই নিয়ে ঝামেলা তৈরি হলো, হাওড়ার ছেলে অর্রণবের। বছর কুড়ির অবিবাহিত যুবক অর্ণব, গ্রাজুয়েশনের ছাত্র অর্ণবের স্কুল কলেজে বান্ধবী তেমন নেই বললেই চলে। যাই হোক অর্ণব এমন এক অদ্ভুত দাবী করে বসলেন হঠাত গত ২২ জুলাই সন্ধ্যে বেলা।

Loading...

সেদিন সন্ধ্যায় রীতিমত রেগে মেগে উষ্কখুষ্ক চুল নিয়ে পাড়ার চায়ের দোকানে হাজির অর্ণব। চা খেতে খেতে হঠাত চিৎকার করে উঠলেন তিনি নাকি সার্ফ এক্সের বিরুদ্ধে মামলা করবেন, কারণ গত রাতের তার প্যান্টে আঁকা অ্যামিবার স্ট্রাকচার নাকি তিনবার ধুয়েও দূর করতে পারেনি সে। এখনও দাগ!!

এটা কিভাবে সম্ভব? কি এমন আছে অর্ণবের দেহে, যে সার্ফ এক্সেল ধূয়ে দূর করতে পারেনি? এই নিয়ে রীতিমত চিন্তায় এলাকাবাসী। অর্ণবের বন্ধু ও সিঙ্গেল সমিতির কিছু লোক অর্ণবের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তারা বলছে প্রইয়োজনে ডিটারজেন্ট বয়কট করবে তারা। তবে ঘটনার সত্যতা নিয়ে কিছু জানা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *