একটা বিচি নিয়ে কি মানুষ বেচে থাকতে পারে? জানতে ক্লিক করুন

কটা বিচি নিয়ে কি মানুষ বেঁচে থাকতে পারে? বা কি হতে পারে? আসুন জেনে নিই আনডিসেন্ডেন্স টেস্টিস সম্পর্কে। কি হয় যদি একটি অন্ডকোষ থাকে? জানুন এখানে-

আনডিসেন্ডেড টেস্টিস (Undescended Testis)

Loading...

পরিণত বয়সের অনেক পুরুষকেই ডাক্তারের কাছে আসতে দেখা যায় তার অন্ডথলিতে (Scrotum)শুধুমাত্র একটি শুক্রাশয় বা Testis থাকার কারনে। অন্য শুক্রাশয়টির অনুপস্থিতি কিন্ত তার জন্মলগ্ন থেকেই। এর একটি প্রধান কারন আনডিসেন্ডেড টেস্টিস বা অন্ডথলিতে শুক্রাশয় না নামা।

তাহলে ঐ শুক্রাশয় টি কোথায় থাকে?আসলে মাতৃগর্ভে ছেলে শিশু জন্মের সময় তার শুক্রাশয় গুলো থাকে পেটের ভেতরে, শিশুর জন্মের আগেই অবশ্য তা অন্ডথলিতে পৌছে যায়। তবে শতকরা প্রায় ৪ (চার) জন শিশু জন্ম গ্রহনের সময় অন্ডকোষে কেবল একটি শুক্রাশয় নিয়েই জন্মায়। এই চার জনের মধ্যে ২ জন শিশুই ১ মাসের মধ্যে অন্ডথলিতে তার অপর শুক্রাশয়টি ফেরত পায়।

১ মাসের পরে আর শুক্রাশয়কে অন্ডথলিতে নামতে খুব একটা দেখা যায়না। তাই সাধারন পুরুষ জনগোষ্ঠির মাঝে শতকরা প্রায় ২ জন এই আনডিসেন্ডেড টেস্টিস রোগে ভূগে থাকে। নেমে না আসা ঐ শুক্রাশয় টি পেট থেকে অন্ডথলিতে নেমে আসার পথের কোথাও না কোথাও আটকে থাকে।অনেক বাবা-মা ই শিশুর এই অসুবিধার কথাটি জানেন না আর শিশু নিজে যখন বুঝতে শিখে ততদিনে অনেক সময় পার হয়ে যায়।

এজন্য জন্মের পরপরই শিশু বিশেষজ্ঞ দ্বারা পরীক্ষা করিয়ে দেখে নেয়া উচিত ভূমিষ্ঠ শিশুটির সকল অঙ্গ ঠিকমতো আছে কিনা।নেমে না আসা শুক্রাশয়টি প্রায় ৬ বছর বয়স পর্যন্ত তার যাত্রাপথের কোনো এক স্থানে সুস্থ্যভাবেই অবস্থান করে। তবে এর পরে বিশেষ করে বয়সন্ধির সময় তা সঠিক হারে বৃদ্ধি পেতে পারেনা।

১৫-১৬ বছর বয়সের দিকে শুক্রাশয়টি একদম ছোটো এবং তুলতলে নরম হয়ে আসে। এটি কোনো কাজে আসেনা দেখে পুরুষ শিশুটির পুরুষালি চরিত্র প্রভাবিত করার হরমোন কম নিঃসৃত হয় এবং শিশুটির সঠিক পুরুষালি বৃদ্ধি ব্যহত হতে পারে।

যাত্রাপথে আটকে যাওয়া ঐ শুক্রাশয়টি থেকে পরিণত বয়সে ক্যান্সার হবার ঝুকি ও খুব বেশী থাকে।স্বভাবতই প্রশ্ন জাগতে পারে এ ধরনের সমস্যা হলে কি করতে হবে। অপারেশন (অর্কিডোপেক্সি) ই আসলে এই রোগের একমাত্র সফল চিকিৎসা। অপারেশনের আগে পেটের আলট্রাসনোগ্রাম করে দেখে নিতে হয় নামতে ব্যর্থ হওয়া শুক্রাশয় টি কোথায় আছে।

জন্মের ২ বছরের মধ্যেই এই অপারেশন করিয়ে নেয়া ভালো,আবার কেউ কেউ ১ বছর কেই উৎকৃষ্ট সময় হিসেবে বিবেচনা করে থাকেন। তবে বাচ্চা স্কুলে যাবার আগেই এই অপারেশন করিয়ে নিলে শিশুর নতুন কোনো ঝুকি থাকেনা। শিশুটি বড় হয়ে গেলে এই আনডিসেন্ডেড টেস্টিস অনেক ধরনের সমস্যা করে থাকে, তাই সঠিক বয়সে রোগ নির্নয়ের পরপরই যথাসময়ে বিশেষজ্ঞ শিশু সার্জন দিয়ে অপারেশন করিয়ে শিশুকে ঝুকিমুক্ত রাখা উচিত।

যদি আপনার একটি অন্ডকোষ সম্পূর্ণ ভাল থাকে এবং তার উৎপাদিত শুক্রাণুর পরিমান ৫০ লাখ এর কাছাকাছি হয় তাহলে সম্ভব । মানবদেহের যে অঙ্গ গুলি দুইটি করে আছে তার একটি নষ্ট হলেও অন্যটি দিয়ে স্বাভাবিক সবকিছু ই চলে। 
সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *