২০২২ সালে মহাকাশে ভাড়ার রকেটে প্রথম মানুষ পাঠাবে পাকিস্তান, দেবে ভারতকে টক্কর

মহাকাশে যখন একের পর এক স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে ISRO তখন কি পিছিয়ে থাকতে পারে প্রতিবেশি পাকিস্তান? তাই এবার মহাকাশে যেতে চলেছে তারাও। পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ফওয়াদ চৌধুরি জানিয়েছে, ২০২২ সালে মহাকাশে প্রথম মানুষ পাঠাবেপাকিস্তান। সেজন্য ২০২০ থেকে লোক বাছাইয়ের কাজ শুরু হবে সেদেশে।

গত ২২ জুলাই চন্দ্রযান ২-এর সফল উৎক্ষেপণ করেছে ISRO। আগামী সেপ্টেম্বরে চাঁদের মাটি ছোঁবে ভারতের চন্দ্রযান। এছাড়াও গত ১ দশকে এক সঙ্গে ১০০-র বেশি কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করে গোটা বিশ্বকে চমকে দিয়েছে ভারতীয় মহাকাশ সংস্থা ইসরো। এমনকী পশ্চিমি সংস্থাগুলি ইসরোকে বেছে নিচ্ছে তাদের উপগ্রহ উৎক্ষেপণের জন্য।

Loading...

অন্যদিকে দিকে মহাকাশ প্রযুক্তিতে ভারতের থেকে পেছনের সারিতে লাস্ট বেঞ্চে বসে পাকিস্তান। এখনো ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তিই ঠিক করে তৈরি করতে পারেনি সেদেশের বিজ্ঞানীরা। এই পরিস্থিতিতে ভারতের সঙ্গে টক্কর নেয়া তো দূরে থাক, ধরা ছোয়ার বাইরে। এরই মধ্যে সেদেশের সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ২০২২ সালের পাঠানো হবে পাক মহাকাশচারী। ফওয়াদ চৌধুরি আরও জানিয়েছেন, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে মহাকাশচারী বাছাইয়ের কাজ। প্রাথমিকভাবে ৫০ জনকে বাছাই করবে সেদেশের বায়ুসেনা। তার থেকে ধাপে ধাপে বাছাই করা হবে ১ জনকে।

মহাকাশে একটা পিঁপড়ে পাঠানোরও প্রযুক্তি এখনো নেই পাকিস্তানের কাছে। সেদেশে একটি মহাকাশ সংস্থা থাকলেও তাদের কোনো খোজ মেলে না। ফলে পাকিস্তানকে মহাকাশচারী পাঠাতে হবে অন্য কোনও দেশের উপর ভরসা। সেক্ষেত্রে বন্ধু চিনের সাহায্য চায় পাকিস্তান। ঠিক যেমন ১৯৮৪ সালে রুশ মহাকাশযান সয়ুজে করে রাকেশ শর্মাকে মহাকাশে পাঠিয়েছিল ভারত।

তবে এটা ঠিক, গগনায়ন প্রকল্পে ২০২২ সালে ভারতের মাটি থেকে সম্পূর্ণ দেশিয় প্রযুক্তিতে মহাকাশে মানুষ পাঠাবে ভারত। সেই বছরই ভাড়ার মহাকাশযানে মহাকাশে মানুষ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান তাও আবার অন্য দেশের ভরসায়।

তথ্যসূত্রঃ India Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *