“আমাদের দয়ায় ইংল্যাংন্ড ফাইনালে”-দাবী পাকিস্তানীদের

শেষ হলো বিশ্বকাপের নক আউট পর্ব, আজ সেমিফাইনালের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয় দুই শক্তিশালী টিম অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড। পাচ বারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ১৯৯২ এর পর বাদে ইংল্যান্ড ফাইনালে পৌছালো। ১৪ জুলাই, লর্ডসে বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের সামনে নিউ জিল্যান্ড।

অস্ট্রেলিয়ার ২২৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে মেজাজেই শুরু করেছিলেন দুরন্ত ছন্দে থাকা দুই ওপেনার জনি বেয়ারস্টো এবং জেসন রয়। বিশেষ করে স্টার্ক, বেহরনড্রফ, কামিন্সদের বিরুদ্ধে আক্রমণের পথই বেছে নেন জেসন রয়। বরং অনেকটা ধীরে খেলতে থাকেন জনি বেয়ারস্টো।

Loading...

১২৪ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপই ইংল্যান্ডের জয়ের ভিত গড়ে দেয়। ৩৪ রানে আঠন হন বেয়ারস্টো। ৬৫ বলে ৮৫ রান করে ফিরলেন জেসন রয়। এরপর জো রুট এবং ইয়ন মর্গ্যান জুটি অনায়াসেই ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপের ফাইনালে তুলে নিয়ে গেলেন।  জো রুট ৪৯ এবং মর্গ্যান ৪৫ রানে অপরাজিত থাকেন। ৩২.১ ওভারে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড।

খেলা শেষ না হতেই ইংল্যান্ডের জয়ের আন্দাজ পেতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হলো পাকিস্তানী সমর্থকদের চুকলিবাজি। নিজেদের দল সেমিফাইনালের স্বাদ না পেলেও বিতর্কে পেছনে থাকে না তারা। কিছু সমর্থকের দাবী তাদের দয়ায় ইংল্যান্ড ফাইনালে। কারণ পাকিস্তান আর একটা ম্যাচ জিতলে পাকিস্তান সেমিফাইনালে যেতে পারত এক্ষেত্রে ইংল্যান্ড বাদ পড়ত।

তাই ইংল্যান্ডের এই জয়ের ক্রেডিট নিজেদের বলে দাবী করছে পাকিস্তান। দাবী তাদের দয়ায় ভর করে ইংল্যান্ড ফাইনালে নাহলে অন্য কিছুই হত রেজাল্ট। ফাইনালে নাকি নিউজিল্যান্ড পাকিস্তান খেলতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *