ইংল্যান্ডে হোটেলের টয়লেট থেকে মগ চুরি, নাম জড়ালো পাক ক্রিকেটারের-জানুন

বিগত দিনে বিরিয়ানী খাওয়া থেকে শুরু করে অনেক ব্যপারে নাম জড়িয়েছে পাক ক্রিকেটারদের; এবার কিনা টয়লেটের মগ চুরি? তাও সূদুর বৃটেন মুলুকে বিশ্বকাপের আসরে? ঘটনার পর নিন্দায় ফেটে পড়েছে গোটা ক্রিকেট মহল। হোটেলের বাথরুমের মগ চুরিকে কেন্দ্র করে হুলস্থুল হোটেলের লবি। সন্দেহের তীর পাক অধিনায়ক সরফরাজের দিকে? কি ঘটেছিলো সেদিন?

ঘটনার সূত্রপাত গত ২৯ তারিখ পাকিস্তান আফগানিস্থান ম্যাচের আগের রাত্রের; লন্ডনের মাইক্রোটেল হোটেলে। হোটেলের লবিতে কেয়ার টেকার এসে জানান রুম নাম্বার ১০৮ এর টয়লেটের মগ পাওয়া যাচ্ছে না। সেইদিন দুপুরে চেক আউট করে পাকিস্তানের সরফরাজ আহমেদ। এরকম ঘটনা দেখেই লবি জুড়ে হাসির রোল পড়ে যায়।

সকলে হাসাহাসি শুরু করে, গোটা হোটেল জুড়ে রটে যায় সরফরাজ আহমেদ টয়লেটের মগ চুরি করেছে। খবর শোস্যাল মিডিয়া অব্দি গড়ায় আর হাসাহাসি ট্রল শুরু করে নেটিজেনরা। পাকিস্তানীদের প্রতি এমন ধারণা বহন করে বৃটেন? আসলে ঘটনা অন্য, যদিও হাসি তামাশায় দ্রুত রটে যায় ক্রিকেটারের নাম।

আসল ঘটনা হল, ওই হোটেলে ক্রিকেটাররা আসেননি। ওই রুমে যিনি ছিলেন তিনি পাকিস্তানী নাগরিক সরফরাজ আহমেদ। যিনি ক্রিকেট ভক্ত এবং খেলা দেখতে লণ্ডন এসেছেন, ছিলেন ওই হোটেলে। নাম একই হওয়ায় না বুঝে না জেনে সবাই রটিয়ে দেয় পাকিস্তান অধিনায়কের নাম। হোটেলের লবির ব্যাগ স্কানারে সে ঘটনা ধরাও পড়েছে।

মগের সাথে পাউট করে সেলফিও পোস্ট করেন সরফরাজ তার ফেসবুক প্রোফাইলে; ক্যাপশনে লেখেন-“ধরতে পারবেন না” তাও কেস খেয়ে জান। কথা বলা হয় সরফরাজ আহমেদের সাথে, তিনি বলেন পাকিস্তানে এমন সুন্দর বাথরুম টয়লেট তিনি কখনও দেখেননি। তাই দেখে লোভ হয়ে যায়।

তিনি বলেন “মন চাইছিলো, পুরো কমোড ধরে তুলে আনি, কিন্তু সম্ভব নয় তাই মগ নিয়ে এসেছি, হোটেল প্রচুর টাকা নেয় এক রাতের জন্য, আমার ফেরার টাকাটাও নেই এখন, একটা মগ নিলে ওদের কি কিছু কমে যাবে??” আক্ষেপ প্রকাশ করে রাগ উগরে দেন সরফরাজ

তবে কদিন ব্যবহার করে মগ হোটেল ফিরিয়ে দেবে বলেছেন সরফরাজ; নিজের ফোনে মগের কিছু ফটোও তুলে রাখেন। ক্যামেরার সামনে তিনি শপথ নিয়েছেন একদিন পাকিস্তানের বুকে এমন বাথরুম তিনি বানিয়ে দেখাবেন অপমানের বদলা নিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *